এনায়েতপুরে আ’লীগ নেতাকে হত্যা চেষ্টা!

এনায়েতপুরে আ’লীগ নেতাকে হত্যা চেষ্টা!

এনায়েতপুর ডেস্কঃ



সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার খুকনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আফাজ উদ্দিন বেপারীকে (৪৬) কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। 

আফাজ খোকশাবাড়ি গ্রামের মৃত আবু তাহের বেপারীর ছেলে।

বুধবার দুপুরে এনায়েতপুর থানা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে এর প্রতিবাদে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ৫টি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এসময় অভিযোগে জানা যায়, ১৯ ফেব্রুয়ারি এনায়েতপুর থানা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী এ্যড. বিমল কুমার স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভা করছিল। দলীয় কার্যালয়ের বাহিরে ছিল সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এনায়েতপুর থানা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে পরাজিত সভাপতি পদপ্রার্থী গাজী আমজাদ হোসেন মাষ্টারের নেতৃত্বে বিএনপি-জামাতের কিছু লোকজন আওয়ামীলীগ নেতা আফাজের ছেলে সৌরভকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছিল। এসময় আফাজ এগিয়ে এলে তাকে হত্যার উদ্দ্যোশে পরিকল্পিত ভাবে লাঠি দিয়ে বেধরক মারধর ও মাথায় কোপানো হয়। 

এছাড়া সৌরভের মাথায় আঘাত করা হয়েছে। তাদেরকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

এদিকে বুধবার দুপুরে এনায়েতপুর থানা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে সাধারন সম্পাদক আজগর আলী বিএসসির সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় দলের সাবেক সধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম সিরাজ, খুকনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য গাজী শাহজাহান আলী, থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শওতক আলী, এবিএম শামীম হক, থানা জাতীয় পার্টির নেতা আব্দুল মতিন বেপারী, আওয়ামীলীগের নেতা ইব্রাহিম হোসেন ও মেহেদী হাসান তুষার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। 

এ বিষয়ে এনায়েতপুর থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আজগর আলী বিএসসি বলেন, আমজাদ মাষ্টারের নেতৃত্বে এর আগেও আওয়ামীলীগের অনেক নেতাকে অপমান অপদস্ত করা হয়েছে। আমাকেও বহুবার প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে। সব শেষ খুকনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আফাজ উদ্দিন বেপারীকে থানা পুলিশের ৬০ গজ দুরে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এছাড়া দলীয় ভাবে সাংগঠনিক নীতি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে। দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানানো হয়। এদিকে এনায়েতপুর থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান, বিষয়টি জেনেছি। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।