কাজীপুরে বাবার গরু চুরি করে ছেলে পলাতক, শ্বশুর জেলে!

কাজীপুরে বাবার গরু চুরি করে ছেলে পলাতক, শ্বশুর জেলে!

কাজিপুর ডেস্কঃ



শ্বশুরকে সাথে নিয়ে বাবার গোয়াল থেকে গরু চুরি করেছে ছেলে মো. জাহাঙ্গীর (৩৫)। এ ঘটনায় জাহাঙ্গীর কৌশলে পালিয়ে গেলেও শ্বশুর ফজলে শেখ (৪৮) কে আটক করতে সক্ষম হয়েছে স্থানীয়রা। পরে ফজলে শেখকে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা। ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলার পূর্ব দুবলাই গ্রামে। ফজলে শেখ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার পূর্ব বহুকা গ্রামের মৃত কুরোব আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় গরুর মালিক আবু হাশেম ওরফে চাঁন মিয়া বাদী হয়ে কাজীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। এতে তাঁর বিয়াই (ফজলে) ও ছেলে জাহাঙ্গীর সহ অজ্ঞাত আরও কয়েক জনকে আসামী করা হয়েছে। 

থানা ও গরুর মালিক সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে আটটার দিকে ওই গরুর মালিক গোয়ালে সাতটি গরু রেখে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে সাড়ে দশটার দিকে আবার উঠে গরুগুলোকে দাঁড়ানো অবস্থায় দেখে পুনরায় ঘুমিয়ে পড়েন। এরপর রাত্রী আনুমানিক দুইটার দিকে কয়েকবার গরুর হাম্বা ডাক শুনে জেগে উঠেন হাশেম। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণে বের হতে দেরি হয়। এদিকে বাইরে চোর চোর ডাক চিৎকার শুনতে পান। পরে বের হয়ে দেখেন গোয়ালের দরজা খোলা ও একটি ষাঁড় বাছুর নেই। অন্যদিকে গ্রামের লোকজন গরুটি উদ্ধার ও ফজলে শেখকে আটক করেছেন স্থানীয় আমতলা মোড় থেকে। পরে ওই এলাকায় টহলরত পুলিশের সহযোগিতায় উদ্ধারকৃত গরু সহ আটককৃত ফজলে শেখকে থানায় নিয়ে আসা হয়। 

গরুর মালিক আবু হাশেম ওরফে চাঁন বলেন, 'আমার এই গরুর দাম কম হইরা হলিও ৫০ হাজার টেহা হইবো। থানা পুলিশের সহযোগিতায় আমি গরু ফিরা পাছি।'
তিনি আরও বলেন, 'বিয়া হইরা আমার ব্যাটা (জাহাঙ্গীর) ওর হশুর বাড়িতই থাকে। আমার বাড়িত আইসে না।'

কাজীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত বলেন, গরু চোরকে বুধবার দুপুরে জেলে পাঠানো হয়েছে। আর গরুটিকে মালিকের হেফাজতে দেয়া হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।