কামারখন্দের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হলেন শীলা প্রামাণিক

কামারখন্দের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হলেন শীলা প্রামাণিক

কামারখন্দ ডেস্কঃ



জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ- ২০২২ উদযাপন উপলক্ষ্যে উপজেলা পর্যায়ে প্রতিযোগিতায় সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন কামারখন্দ উপজেলের ড. সালাম জাহানারা কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক  শীলা প্রামাণিক।

গত বৃহস্পতিবার (১৯মে) কামারখন্দ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: ছাকমান আলীর স্বাক্ষরিত একটি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য পাওয়া যায়।তাঁর এমন কৃতিত্বে কলেজের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে।

শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হওয়ার অনুভূতি ব্যক্ত করে তিনি বলেন, এ অর্জন আমার একার নয়। এই অর্জন চৌবাড়ী ড. সালাম জাহানারা কলেজের সকলের।

তিনি বলেন শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায়  আমি ভীষণ আনন্দিত। আমি সব সময়ই চেয়েছি ছাত্র-ছাত্রীদের আধুনিক, যুগোপযোগী ও সংস্কৃতিমনা করে গড়ে তুলতে।  শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার মান বৃদ্ধিতে আমি সবসময় সচেষ্ট। তবে এমন অর্জন আমাকে আরও অনুপ্রেরণা দেবে।

তিনি ২০০৩ সালে চৌবাড়ী ড. সালাম জাহানারা কলেজে প্রভাষক পদে যোগদান করেন। ২০২২ ইং সালে  সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি হয। পেশাগত দক্ষতার নিদর্শনস্বরূপ তিনি ২০১২ ইং সাল থেকে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার পরীক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

খুব অল্প সময়ের ব্যবধানে ২০১৭ ও ২০১৮ সালে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের প্রধান পরীক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পান। যা তাঁকে শিক্ষকতা পেশায় আরো বেশি দায়িত্বশীল করে তোলে। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জেলা শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় পাবনায় ২০১৬ সালে বিষয়ভিত্তিক কারিকুলাম বিস্তরণ ও  সৃজনশীল প্রশ্নপত্র প্রণয়নের উপর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। ২০১৯ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিটিটি ইন হাউস  প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। এছাড়াও তিনি কম্পিউটার ও টাইপরাইটিং এ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।

তাঁর সৃজনশীল প্রকাশনার মধ্যে কলেজের বিভিন্ন বার্ষিকী প্রকাশনার সম্পাদনা পরিষদের দায়িত্ব পালন করে চলেছেন। সিরাজগঞ্জের স্থানীয় বিভিন্ন পত্রিকায় অসংখ্য কবিতা ও বিভিন্ন ধরনের লেখা প্রকাশিত হয়ে আসছে। ও জাতীয় পত্রিকা প্রথম আলোতে তাঁর লেখা প্রকাশিত হয়েছে।

তাঁর লেখা চারটি কাব্যগ্রন্থ রয়েছে। দুটি একক ও দুইটি যৌথ কাব্যগ্রন্থ। প্রকাশিতব্য কাব্যগ্রন্থ আরও দুটি। শীলা প্রামাণিক কেবল একজন মনোবিজ্ঞানের শিক্ষক তাই নয় তিনি মনোবিজ্ঞানের শিক্ষক হওয়া সত্বেও বাংলা সাহিত্যে তিনি দক্ষতার পরিচয় রেখে চলেছেন।

তিনি একাধারে একজন কবি, আবৃত্তিশিল্পী (বাচিকশিল্পী) বাংলা একাডেমীর প্রমিত উচ্চারণে দক্ষ (প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত), রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষক ও প্রধান পরীক্ষক, ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরিতে দক্ষ, প্রগতিশীল, কঠোর পরিশ্রমী, সংস্কৃতিমনা ও বিনয়ী একজন মানুষ।

তাঁর একান্ত নিষ্ঠা, কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যবসায়ই তাঁকে সফলতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। তাঁর সফলতার জন্য পরিবারের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেছেন। তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সাথে চলতে চান। তিনি তাঁর ছাত্র-ছাত্রীদেরকে মানবিক ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।