কামারখন্দে টাকার বিনিময়ে টিকা প্রদান ও বিদেশ গমনেচ্ছুদের হয়রানির অভিযোগ

কামারখন্দে টাকার বিনিময়ে টিকা প্রদান ও বিদেশ গমনেচ্ছুদের হয়রানির অভিযোগ

রাজ্জাক রাজ (স্টাফ রিপোর্টার)



সিরাজগঞ্জ কামারখন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টাকার বিনিময়ে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান ও বিদেশ গমনেচ্ছুদের নানা প্রকার হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে দেশব্যাপী বিনামূল্যে সরকারি ভাবে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান করার নিদের্শনা থাকলেও কামারখন্দে বিদেশ গমনেচ্ছুদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে টাকা। দেখানো হচ্ছে নানান ভয়ভীতি। এমনটাই অভিযোগ করেছেন কয়েকজন ভুক্তভোগী।

কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, বিদেশ যাওয়ার আগে আমরা টিকা নিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে বিভিন্ন অজুহাতে আমাদের কাছ থেকে টাকা দাবি করা হয়। যারা টাকা প্রদান করেন তাদের সাথে সাথেই টিকা দেওয়া হয়। টাকা না দিলে টিকা ফুরিয়ে গেছে, সামনে সপ্তাহে আসেন সহ নানা রকমের হয়রানি করা হয়।

জাহিদুল নামের এক ব্যক্তি জানান, আমি দুটি টিকা গ্রহণ করেছি, হাসপাতালে ৩য় ডোজের জন্য গেলে সুমন নামের একজন টিকাদান কারী বলেন, আপনি যে টিকা দিয়েছেন এসব টিকার কোন মূল্য নাই ভুয়া, এ টিকায় কাজ হবে না, নতুন করে নিবন্ধন করতে হবে ৫শ টাকা লাগবে।

কামারখন্দ পাইকশা গ্রামের ছানোয়ারের ছেলে আবুল কাইয়ুম জানান, আমি সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য টিকা গ্রহণ করতে কামারখন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাই, আমার সাথে আরও দুজন ছিল সুমন নামের একজন মাল্টি পারপাস হেলথ্ ভলেন্টিয়ার আমাদের নিকট মিষ্টি খাওয়ার জন্য টাকা দাবি করে। দুজন টাকা দিয়ে টিকা গ্রহণ করে, আমি টাকা দিতে অস্বীকার করলে আমাকে টিকা দেওয়া হয়নি, পরে সিরাজগঞ্জ সদর থেকে টিকা গ্রহণ করি।

অভিযোগের বিষয় অস্বীকার করে মাল্টি পারপাস হেলথ্ ভলেন্টিয়ার সুমন জানান, টিকা গ্রহণে কোন ধরনের টাকা পয়সা নেওয়া হয় না। যারা এধরণের অভিযোগ করেছেন তারা মিথ্যা বলেছেন।

কামারখন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ ইব্রাহিম হোসেন জানান, এ অভিযোগটি আমার কাছেও আসছিলো। ওদের কাছে পাসওয়ার্ড ছিলো এটা নিয়ে দু চারটা অভিযোগ ছিলো, পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করা হয়েছে, আর এমনটা হবে না। এখন আমার কাছে অভিযোগ নিয়ে আসলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।