চৌহালীতে অনিয়ম ও দুর্নীতির দায়ে ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

চৌহালীতে অনিয়ম ও দুর্নীতির দায়ে ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

চৌহালী ডেস্কঃ



সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার চার নম্বর উমারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ আব্দুল মতিন মণ্ডলকে অনিয়ম-দুর্নীতির দায়ে অপসারণ করা হয়েছে। 

বুধবার (৯ জুন) সন্ধ্যায় চৌহালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আফসানা ইয়াসমিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ইউএনও বলেন, ‘স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব আবু জাফর রিপন স্বাক্ষরিত চিঠিতে ইউপি চেয়ারম্যানের বরখাস্তের আদেশ পেয়েছি। চিঠির নির্দেশনা মোতাবেক চেয়ারম্যান পদ শূন্য ঘোষণা করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।’

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারের ভিজিডি কার্ডধারীদের চাল বিতরণে অনিয়ম, ভিজিডি কার্ডধারীদের প্রতি মাসে ২০০ টাকা জমা না দিয়ে উল্টো আরও ৫০ টাকা করে সঞ্চয় আদায়সহ জেলেদের মাঝে ভিজিডি কার্ডের চাল বিতরণে অনিয়ম করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মণ্ডল। ২০১৯-২০ অর্থবছরে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসূচির আওতায় শ্রমিকদের মাথাপিছু এক হাজার টাকা উত্তোলন ছাড়াও চেকে ভুয়া স্বাক্ষর দিয়ে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন।

এতে আরও বলা হয়, বিধি-বিধান তোয়াক্কা না করে ব্যাংক কর্মকর্তাদের যোগসাজশে নির্ধারিত সময়ের আগেই প্রকল্পের টাকা উত্তোলন করেছে। এসব অভিযোগ প্রাথমিক প্রমাণিত হওয়ায় জেলা প্রশাসকের সুপারিশে আব্দুল মতিন মণ্ডলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। তাকে কেন চূরান্তভাবে চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারণ করা হবে না এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে পত্রের মাধ্যমে কারণ দর্শনো হয়।

আব্দুল মতিন মণ্ডলের কারণ দর্শানোর জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় জনস্বার্থের পরিপন্থি বিবেচনায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪ (৪) (খ) ও (ঘ) ধারায় অপরাধ করায় একই আইনের ৩৪ এর (৫) ধারা মোতাবেক আব্দুল মতিন মন্ডলকে ইউপি চেয়ারম্যানের পদ থেকে স্থায়ী ভাবে অপসারণ করা হয়।