চৌহালীতে যমুনা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে অর্থদণ্ড

চৌহালীতে যমুনা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে অর্থদণ্ড

চৌহালী ডেস্কঃ



সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুরে যমুনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে আবারো সাহেদ আলী নামে এক ড্রেজার মালিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।  

রোববার (৪ জুলাই) দুপুরে চৌহালী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহিদ আল হাসানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত এ আদেশ দেন।

অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত সাহেদ আলী চৌহালী উপজেলার বেতিল গ্রামের বাসিন্দা।  

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহিদ আল হাসান জানান, চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুর থানার সদিয়াচাঁদপুর ইউনিয়নের উড়াপাড়া, ইজারাপাড়া, মৌহালী এলাকা থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন ও বিক্রি করছিল একটি চক্র।

১৭ জুন সেখানে অভিযান চালিয়ে ৮ বালু ব্যবসায়ীকে আটকের পর ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।  
একই স্থানে রোববার আবারও বালু উত্তোলন করা হচ্ছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে সাহেদ আলী নামে এক ড্রেজার মালিককে আটক করা হয়। পরে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, এনায়েতপুরের একদিকে চলছে নদীভাঙন। অপরদিকে গত দেড় মাস ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছিল। এলাকাবাসী বার-বার নিষেধ করলেও তারা মানছিলেন না। ১৭ জুন ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের পর তিন-চারদিন পর আবারও বালু উত্তোলন শুরু করেছে ওই চক্রটি।

এনায়েতপুর থানার সদিয়া চাঁদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সিরাজুল আলম মাস্টার জানান, দফায় দফায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানেও বন্ধ হচ্ছে না বালু উত্তোলন।

চৌহালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহিদ আল হাসান জানান, অবৈধভাবে যমুনা থেকে বালু তুলতে দেওয়া হবে না। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।