তাড়াশে মাদক সেবনকালে শিক্ষকসহ আটক ৪, কারাগারে প্রেরণ

তাড়াশে মাদক সেবনকালে শিক্ষকসহ আটক ৪, কারাগারে প্রেরণ

তাড়াশ ডেস্কঃ



মাদক সেবন এবং জুয়া খেলার সময় সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এক স্কুল শিক্ষক ও কর্মচারীসহ ৪ জনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা।  

রোববার (১০ এপ্রিল) দুপুরে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৫১ ধারায় মামলা দিয়ে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- উপজেলার তালম ইউনিয়নের গুল্টা বাজার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মাসুদ রানা, গুল্টা আদিবাসী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পিয়ন সোহেল রানা, গুল্টা গোলাপুর গ্রামের মৃত আবু বক্করের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩১) ও  জরিত প্রামাণিকের ছেলে হাবিবুর রহমান।  

এর আগে শনিবার (৯ এপ্রিল) গভীর রাতে উপজেলার বড়ইচরা গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক দেলোয়ার হোসেনের বাড়িতে জুয়া খেলা ও ইয়াবা এবং মদপানের সময় তাদের আটক করে স্থানীয়রা।
 
রানীহাট দারুল উলুম ইসলামিয়া মাদরাসার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মজনু সরকার বলেন, ভাটা শ্রমিক দেলোয়ার হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন বাড়িতে না থাকার সুবাদে গত ৭ দিন ধরে স্কুল শিক্ষক মাসুদ, পিয়ন সোহেলসহ চারজন তাস দিয়ে জুয়া খেলার পাশাপাশি মদ্যপান এবং ইয়াবা সেবন করছিলেন। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা রোববার গভীর রাতে তাদের ধরে ফেলে।

পরে পুলিশ এসে তাদের আটক করে নিয়ে যায়।  
  
তাড়াশ থানার সেকেন্ড অফিসার (এসআই) আব্দুস সালাম বলেন, গভীর রাতে টহল পুলিশের একটি দল চিৎকার শুনে ঘটনাস্থল উপজেলার তালম ইউনিয়নের বড়ইচরা গ্রামের দোলোয়ার হোসেনের বাড়িতে যায়। পরে স্থানীয়দের হাতে আটক শিক্ষক ও পিয়নসহ চার ব্যক্তিকে থানায় আনা হয়।  


তাড়াশ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন,  জনতার পক্ষ থেকে কেউ বাদি না হওয়ায় ১৫১ ধারা মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।  

এসব বিষয়ে গুল্টা বাজার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলী আহমেদ ও গুল্টা আদিবাসী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছাত্তার বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সঙ্গে বসে তাদের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।