তাড়াশে স্বামীর সাথে অভিমানে গৃহবধূর আত্মহত্যা !

তাড়াশে স্বামীর সাথে অভিমানে গৃহবধূর আত্মহত্যা !

এইচ এম মাহবুবুর রহমান (তাড়াশ):



সিরাজগঞ্জের তাড়াশে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে স্ত্রী জিয়াসমিন খাতুন (৩২) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের নওগাঁ বাজার এলাকায়।

মৃত গৃহবধু জিয়াসমিন ওই এলাকার মো. জহুরুল ইসলামের মেয়ে ও নাটোর জেলার গুরদাসপুর উপজেলার বামনখোলা গ্ৰামের মুনিরুল ইসলামের স্ত্ৰী।

এদিকে অভিযোগ না থাকায় দাফনের অনুমতি দিয়েছেন তাড়াশ থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাড়াশ থানার ওসি তদন্ত নূরে আলম।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রথম স্বামীর সাথে তালাকের পর পারিবারিকভাবে চার মাস আগে জিয়াসমিনের দ্বিতীয় বিয়ে হয় নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার বামনখোলা গ্রামের মনিরুল ইসলামের সাথে। বিয়ের পর থেকেই অদ্যবধি বাপের বাড়িতে আছেন জিয়াসমিন। জিয়াসমিন স্বামীর (মনিরুল) বাড়িতে যাওয়ার জন্য মনিরুলকে একাধিকবার জানালে তিনি অস্বীকার করেন। এর এক পর্যায়ে গত রবিবার মনিরুল জিয়াসমিনের বাড়িতে আসেন। পরেরদিন সোমবার তিনি চলে গেলে স্বামীর ওপর অভিমান করে সবার অজান্তে নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওই গৃহবধূ গলায় ওড়না জড়িয়ে ফাঁস দেয়। পরে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার ওসি তদন্ত নূরে আলম বলেন, পারিবারিকভাবে কোন অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।