দেশের ৪২% মানুষের ক্রয়ক্ষমতা নেই: সিরাজগঞ্জে বিএনপির সমাবেশে মিজানুর রহমান মিনু

দেশের ৪২% মানুষের ক্রয়ক্ষমতা নেই: সিরাজগঞ্জে বিএনপির সমাবেশে মিজানুর রহমান মিনু

এক্সপ্রেস ডেস্কঃ



এবারে বিএনপির আন্দোলন হবে শেখ হাসিনাকে হারিকেন ও মোমবাতি দিয়ে দেশ থেকে বিদায় করার আন্দোলন। আজ দেশের ৪২% মানুষ খেতে পারছে না, তাদের ক্রয় ক্ষমতা নেই। তাই অচিরেই বাংলাদেশের মানুষ এই সরকারের পতন ঘটাবে। 

রবিবার সকালে সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপি'র উদ্যোগে সারাদেশে লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ এ কথা বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য মিজানুর রহমান মিনু। 

সকাল সাড়ে ১১টায় সিরাজগঞ্জের ইবি রোডস্থ ভাসানী মিলনায়তনে জেলা বিএনপির সভাপতি রুমানা মাহমুদের সভাপতিত্বে সমাবেশে মিজানুর রহমান মিনু আরো বলেন, সরকার বিদ্যুত খাতে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করেছে। দেশ আজ একটি পরিবারের কাছে জিম্মি। যেভাবে শ্রীলঙ্কা একটি পরিবারে দুর্নীতির কারনে দেশ দেউলিয়া হয়েছে তেমনি আমাদের দেশও সেই পথে হাটছে। দেশের মানুষের ক্রয় ক্ষমতা কমে গেছে। দেশের ৪২% মানুষ আজ খাবার কিনতে পারছেন না। তিনি আরো বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন ৩.৪০ পয়সা ইউনিটে বিদ্যুৎ দিয়েছিল। আর আজ ৩.৪০ পয়সার বিদ্যুৎ আজ ১২ টাকা ৪০ পয়সা। তার পরও দেশের মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছেনা। চার গুন বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পরেও কেন সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়, কেন লোডশেডিং হয়? এর মুলে হচ্ছে দুর্নীতি।

সমাবেশে পরিচালনা করেন বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপি'র সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু। এই সময় বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন রায়গঞ্জ ও তাড়াশ উপজেলার সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান তালুকদার। উপস্হিত  ছিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির  সহ-সভাপতি মকবুল হোসেন চৌধুরী, বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান দুলাল, সহ-সভাপতি ও কাজিপুর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক নাজমুল হাসান তালুকদার রানা, ভিপি অমর কৃষ্ণদাস, রকিবুল হাসান রতন, মতিয়ার রহমান, জাহাঙ্গীর হোসেন ভুঁইয়া সেলিম, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শামীম খান, রাশিদুল হাসান রঞ্জন, হারুন অর রশিদ খান হাসান, মুনসি জাহিদ আলম, সাব্বির হোসেন ভুঁইয়া সাফি, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ সুইট, মির্জা মোস্তফা জামান, আলমগীর আলম, প্রচার সম্পাদক আলমগীর হোসেন জুয়েলসহ সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, সহ দপ্তর সম্পাদক এনামুল হক, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ সম্পাদক এম দুলাল উদ্দিন আহমেদ, শহর বিএনপির  যুগ্ন আহবায়ক রেজাউল জোয়ারদার, সদর থানা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক লুৎফর রহমান ভুঁইয়া, জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু, সাধারণ সম্পাদক মোরাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলীম, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী সাবিনা ইয়াসমিন হাসি, সাধারণ সম্পাদক এলেনা বেগম, সাংগঠনিক সম্পাদক জোসনা মন্ডল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন রাজেশ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কায়েস, সাংগঠনিক সম্পাদক মিলন হজ রনজু,জেলা শ্রমিক দলের আহবায়ক আব্দুল মজিদ, জেলা জাসাসের আহবায়ক আব্দুল্লা আল মামুন রানা, জেলা মৎসজীবি দলের সদস্য সচিব আলমাস আহমেদ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি জুনায়েদ হোসেন সবুজ, সাধারণ সম্পাদক সেরাজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক রিফাত হাসান সুমন সহ জেলা বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ সহযোগী সংগঠন নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে বিভিন্ন উপজেলা, থানা, শহর, ওয়ার্ড বিএনপির অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মিছিল করে শ্লোগান দিয়ে জেলা বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেন।