বগুড়ায় ফ্রি-ফায়ার গেম খেলতে না দেয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্নহত্যা!

বগুড়ায় ফ্রি-ফায়ার গেম খেলতে না দেয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্নহত্যা!

সারাবাংলা ডেস্কঃ



বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় ফ্রি-ফায়ার গেম খেলতে না দেয়ায় উম্মে হাবিবা বর্ষা নামের এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। বর্ষা বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

মঙ্গলবার (২৫মে) সকালে বর্ষার বাসা থেকেই তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বর্ষা উপজেলার বি-ব্লক এলাকায় তার বাবা-মায়ের সঙ্গে ভাড়াবাসাতে থাকত। তার বাবার নাম রওশন হাবিব। তিনি চাকরির সুবাদে ঢাকায় থাকেন।

শাজাহানপুর থানার এসআই সোহেল রানা বলেন, ‘মরদেহের পাশেই পড়ে ছিল একটি খাতা। সেখানে পেন্সিল দিয়ে লেখা রয়েছে ফ্রি-ফায়ার গেম খেলতে না দেয়ায় সে আত্মহত্যা করেছে। গেমটি খেলার কারণে তার বাবা-মা তাকে সবসময় বকা দিত। একারণে অভিমানে সে আত্মহত্যা করেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বর্ষা মুঠোফোনে ফ্রি-ফায়ার গেম খেলতে পছন্দ করত। সোমবার (২৪ মে) রাতে তার মায়ের কাছে সে মুঠোফোন চায়। কিন্তু তার মা তাকে ফোন দেননি। এতে সে অভিমান করে নিজ ঘরে এসে দরজা বন্ধ করে দেয়। পরদিন মঙ্গলবার (২৫ মে) সকালে অনেক ডাকাডাকি করেও বর্ষার কোনো সাড়া পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে বর্ষার ঘরের জানালা দিয়ে দেখা যায় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচানো তার ঝুলন্ত মৃতদেহ। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তার লাশ উদ্ধার করে।

এসআই সোহেল বলেন, কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউপি (অপমৃত্যু) মামলা করা হবে।।