বঙ্গবন্ধু সেতুর পিলারের সাথে ধাক্কা লেগে বাল্কহেড ডুবে নিখোঁজ এক

বঙ্গবন্ধু সেতুর পিলারের সাথে ধাক্কা লেগে বাল্কহেড ডুবে নিখোঁজ এক

এক্সপ্রেস ডেস্কঃ



সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর ৯ নং পিলারের সাথে ধাক্কা খেয়ে বালুবোঝাই বাল্কহেড ডুবে একজন নিখোঁজ রয়েছেন। রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুর সারে ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পিলারে ধাক্কা লেগে বাল্কহেডটি ডুবে গেলে ভেতরে থাকা তিনজন সাঁতরে পারে আসলেও একজন উঠতে পারেননি।

বাল্কহেডটি সিরাজগঞ্জ থেকে বালুবোঝাই করে মানিকগঞ্জের দিকে যাচ্ছিল। এ ঘটনায় নিখোঁজ ব্যক্তির নাম আবুল শিকদার। তিনি মানিকগঞ্জ জেলার গ্রাবনিয়া গ্রামের রহিম সিকদারের ছেলে।

প্রত্যাক্ষদর্শী বঙ্গবন্ধু সেতুর আনসার আব্দুর রহমান বলেন, নদীতে পানি বাড়ছে। প্রবল স্রোতের কারণে বাল্কহেডটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ের ৯নং পিলারের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে সাথে সাথেই বালুবোঝাই বাল্কহেডটি ডুবে যায়। এসময় বাল্কহেডে থাকা তিনজন সাঁতরে পারে উঠে আসেন। তবে তারা জানান, বাল্কহেডে এখনও একজন রয়েছেন।

এই আনসার সদস্য আরও জানান, দুর্ঘটনার পর নৌ-পুলিশকে ফোন করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

ঘটনাস্থল থেকে বেঁচে ফেরা মো. খলিলুর রহমান জানান, তারা সিরাজগঞ্জ হাজী সাত্তারের বালুমহাল থেকে বালু ভর্তি করে বাল্কহেডটি নিয়ে মানিকগঞ্জের দিকে যাচ্ছিলেন। নদীতে অতিরিক্ত স্রোত থাকায় পিলারের সাথে ধাক্কা লেগে বাল্কহেডটি ডুবে যায়। এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো ব্যাবস্থা নেয়া হয়নি বলেও জানান খলিলুর রহমান।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতুর সাইড অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান মাসুদ বাপ্পীর সাথে কথা বললে ঘটনাটি অবগত আছেন বলে জানান। সেতুর নিচ দিয়ে ভারি বাল্কহেড চলার ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা আছে কিনা তা তিনি নিশ্চিত নন। তবে প্রায়ই এ ধরনের ঘটনা ঘটায় সেতুর পিলার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ বিষয়গুলো দেখা নৌ-পুলিশের দায়ত্বি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল নৌ-পুলিশ সুপার হারুনর রশিদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, তার বাবা অসুস্থ থাকায় এ ব্যাপারে তিনি কোনো খোঁজখবর রাখতে পারছেন না।