মাত্র দুইশত টাকার জন্য চারজনকে খুন !!

মাত্র দুইশত টাকার জন্য চারজনকে খুন !!

ডেস্ক রিপোর্টঃঃ


টাঙ্গাইলের মধুপুরে একই পরিবারের চারজনকে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মূল হোতা সাগরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাবের দাবী সুদের কারবারের দুইশ টাকাকে কেন্দ্র করে নৃশংস এই চার হত্যাকাণ্ড।

দুইশত টাকা ঋন চাইতে গিয়ে অপমানিত হওয়ায় আব্দুল গনি ও তার পরিবারের চার সদস্যকে খুন বলে জানিয়েছে র‌্যাব। অার ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মধুপুরের ব্রাম্মনবাড়ি গ্রামের মকবর আলীর ছেলে সাগর (২৮) কে নিজ গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

নিহত আব্দুল গনির সাথে সাগর আলীর দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক ছিল সাগরের। সাগর আলী আব্দুল গনির বাসার কাছেই ভাড়া থেকে মধুপুরে রিক্সা চালাতেন। বিভিন্ন সময় গনির কাছ থেকে সাগর সুদে টাকা ঋন নিয়েছেন। ঋনের টাকা পরিশোধ করতে আগে কয়েকবার ব্যর্থ হয়েছেন। গত বুধবার সকালে গনির কাছে সাগর দুইশত টাকা ঋন চাইতে যান। এসময় আব্দুল গনি সাগরকে ভৎসনা করেন এবং তাকে কোন ঋন দেবেনা বলে জানান। এতে সাগর অপমানিতবোধ করেন। পরে মধুপুর বাজারে গিয়ে এক বন্ধুর সাথে গনিকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা মত বুধবার রাত ১০টার দিকে গনির মাস্টারপাড়া এলকার বাসায় যান। তখন গনির স্ত্রী ও সন্তানরা ঘুমে ছিল। গনির সাথে কথা বলার এক পর্যায়ে রুমালে চেতনানাশক নিয়ে তার নাকে মুখে চেপে ধরে অজ্ঞান করেন। অন্য কক্ষে থাকা গনির স্ত্রী ও সন্তানদেরও চেতনানাশক দিয়ে অজ্ঞান করেন। পরে সাথে নিয়ে যাওয়া ছুরি দিয়ে এবং ওই বাড়িতে থাকা কুড়াল দিয়ে তাদের হত্যা করেন। তারা ওই বাড়ি থেকে কিছু মালামাল লুট করে নিয়ে যান। যাওয়ার সময় ঘরের দরজায় ও গেইটে তালা দিয়ে যান। পরে সাগর ব্রাম্মনবাড়ি আশ্রায়ন প্রকল্পে তার বোনের ঘরে লুট করা মালামাল গর্ত করে লুকিয়ে রাখেন। 

র‌্যাব জানায়, ঘটনার পর তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করে সাগরকে তারা চিহ্নিত করেন। ঘাতক সাগর পরে তাকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদকালে তিনি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। এসময় তার কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা ছুরি, মোবাইল, ল্যাপটপ, টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।