মুফতি আমির হামজা ৫ দিনের রিমান্ডে

মুফতি আমির হামজা ৫ দিনের রিমান্ডে

এক্সপ্রেস ডেস্কঃ



ওয়াজ-বক্তব্যের মাধ্যমে ধর্মের নামে অপব্যাখ্যা ও উগ্রবাদ ছড়ানোর অভিযোগে আলোচিত ইসলামি বক্তা মুফতি আমির হামজাকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৫ মে) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

এ বিষয়ে শেরে বাংলানগর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে হওয়া মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) পরিদর্শক কাজী মিজানুর রহমান। তার পক্ষে আইনজীবী রিমান্ড বাতিল পূর্বক জামিন আবেদন করেন। 

একই দিনে মামলার অপর দুই আসামি আব্দুল্লাহ ও আনোয়ার হোসেনকে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

দুপুর দেড়টার দিকে তাকে সিএমএম আদালতে আনা হয় বলে জানান হাজতখানার দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-পরিদর্শক (এসআই) শহিদুল ইসলাম।

গত সোমবার (২৪ মে) দুপুরে কুষ্টিয়ায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিটের প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, তার বিরুদ্ধে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটে তদন্তাধীন একটি মামলা রয়েছে। সেই মামলায় তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে তাকে কুষ্টিয়া থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর কুষ্টিয়া থেকে তাকে ঢাকার সিটিটিসি কার্যালয়ে আনা হয়।

সিটিটিসির সূত্রে জানা যায়, মুফতি আমির হামজা ওয়াজ-মাহফিলে ইসলামের নামে বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়েছেন। ইউটিউবে অবমুক্ত তার বেশ কিছু বক্তব্য উগ্রবাদ ছড়াচ্ছে। যা শুনে কোমলমতি কিশোর-তরুণরা জঙ্গিবাদে আকৃষ্ট হচ্ছে। সম্প্রতি হেফাজতের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার অভিযানের কারণে আত্মগোপনে ছিলেন আমির হামজা।

জাতীয় সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে গ্রেফতার কাজী সাকিব তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেন, মুফতি আমির হামজার বক্তব্য ইউটিউবে দেখে উগ্রবাদী কাজে উদ্বুদ্ধ হন। তার বক্তব্য শুনেই পুলিশের গুলিতে হামলায় নিহতরা শহীদ মর্মে উদ্বুদ্ধ হন।