মিরপুরে রাতে গায়ে্বি কান্না; রহস্য উদঘাটন করলো পুলিশ

মিরপুরে রাতে গায়ে্বি কান্না; রহস্য উদঘাটন করলো পুলিশ

 ডেস্ক রিপোর্টঃ



রাজধানীর মিরপুরে দীর্ঘদিন ধরে রাতে গায়েবি কান্নার শব্দ শুনতে পাচ্ছিল এলাকাবাসী।  কিন্তু কোথা থেকে এ কান্নার শব্দ আসত তা কেউ খুঁজে পাচ্ছিল না।  তবে সম্প্রতি বাংলাদেশ পুলিশের ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে স্থানীয় এক ব্যক্তি তথ্য জানালে এর রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

শুক্রবার (৭ মে) দুপুরে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়, বাড়ির পাশেই নির্মাণাধীন একটি আবাসিক প্রকল্প।  রাতের বেলা প্রায়ই সেখান থেকে গায়েবি এক কান্নার শব্দ ভেসে আসে। কয়েকদিন চেষ্টা করেও রহমান সাহেব (কল্পিত নাম) জানতে পারেননি বিষয়টি কি।  তিনি থাকেন ঢাকার মিরপুরে। 

ঘটনাটি মিরপুর দুই নম্বর সেকশনে তার বাড়ির কাছেই। তাই তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানান। পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত ‘বাংলাদেশ পুলিশ ফেসবুক পেজ’ এর কথা তার জানা ছিল। তিনি ইনবক্স করলেন।

পুলিশ জানায়, তার বার্তাটি পেয়ে মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং ওসি মিরপুর মো. মোস্তাজিরুর রহমানকে নির্দেশনা দেন।  সাদা পোশাকে এ বিষয়টি তদন্ত করে পুলিশ।  এর পরিপ্রেক্ষিতে এসআই মো. নাজমুল হক ও এসআই মো. আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে সাদা পোশাকের একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। 

পরে তারা দেখতে পায়, একটি হাউজিং কমপেক্সের ভেতরে নির্মাণাধীন ও বর্তমানে পরিত্যক্ত একটি বিল্ডিংয়ে মো. জাহাঙ্গীর নামে এক ব্যক্তি তার দুই শিশু বাচ্চা ও স্ত্রী নিয়ে বসবাস করছিলেন।  গ্রামের বাড়ি ভোলা জেলার চরফ্যাশন থানায়। মিরপুরে নির্মাণাধীন কমপ্লেক্সের যে পরিবেশে তিনি থাকতেন সেখানকার পরিবেশটা বেশ ভুতুড়ে।  এখানেই প্রতিদিন তিনি তার সন্তানদের হাত-পা বেঁধে মারপিট করতেন। তারই চিৎকার শোনা যেতো দূর থেকে।  স্ত্রী ও বাচ্চাদের অভিযোগের ভিত্তিতে নির্যাতনকারী বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।