সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায়ে প্র‌শিক্ষণ প্রাপ্ত ইমাম স‌ম্মেলন অনুষ্ঠিত

সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায়ে প্র‌শিক্ষণ প্রাপ্ত ইমাম স‌ম্মেলন অনুষ্ঠিত

নাজমুল হোসেনঃ



সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায় প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ইমাম স‌ম্মেলন-২০২১ অনু‌ষ্ঠিত হ‌য়ে‌ছে।

শনিবার (৫ জুন) বেলা ১১ টায় অফিসার্স ক্লাবে অনুষ্ঠিত  ইমাম স‌ম্মেলনে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজনে এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এই সম্মেলন  অনুষ্ঠিত  হয়। সিরাজগঞ্জ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক  মোহাম্মদ ফারুক আহামেদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে  রাখেন  জেলা  প্রশাসক  ড.ফারুক আহাম্মদ।

বিশেষ  অতিথি বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, সিরাজগঞ্জ জেলা শাখা ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এ্যাডঃ কে এম হোসেন আলী হাসান, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা আবু বক্কার সিদ্দিক প্রমূখ। 

জেলা প্রশাসক ড.ফারুক  আহাম্মদ বলেন, ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম। কিন্তু কিছু মানুষ আজ ধর্মকে ব্যবহার করে ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে ধর্মের নামে হত্যা, সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করছে।তাই সোনার মানুষ গড়ার কারিগর হচ্ছেন ইমাম ও শিক্ষকবৃন্দ। কিন্তু একটি দুষ্ট চক্র ইমামদের পোষাক এবং পবিত্র গ্রন্থের বিভ্রান্তমূলক ব্যাখ্যা দিয়ে মানুষকে ভুল পথে পরিচালিত করে জঙ্গি হিসেবে তৈরী করে। সমাজে অশান্তি সৃষ্টি করে। এদের থেকে সতর্ক থাকতে হবে। পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম বলেন,সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, ধর্ষণ, ইভটিজিং, দুর্নীতিসহ সকল অপরাধ ইসলামে হারাম। সমাজ থেকে এই সমস্ত অপরাধ নির্মূলে ইমামরা গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে। জুমার খুতবায় এবং বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলে ইমামরা এ সকল বিষয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করে তাহলে সমাজ থেকে এ সকল অপরাধ অনেক কমে যাবে।

আলহাজ্ব এ্যাডঃ কে এম হোসেন আলী হাসান বলেন, প্রথমেই স্মরণ করেন বাংলার শ্রেষ্ঠ বীর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন ইমামদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আর্থিক সহায়তার পাশাপাশি সাবলম্বী করে তুলছেন। আপনারা প্রশিক্ষণ নিয়েছেন নিজের দেশ ও দশের কল্যাণে কাজ করে যাবেন। আপনাদের পিছনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অবদান আছে। তাই আপনারা দেশের জন্য ভালো কিছু করে দেখাতে হবে। আপনারা হলেন ইমাম, আর এর অর্থ হচ্ছে নেতা। মানুষ আপনাদের কথার অনুসরণ করে থাকে। তাই ধর্মীয় আইন ও রাষ্ট্রের সকল বিষয়ে জনগণকে আপনারা সুপরামর্শ দিবেন। এতে আপনাদের প্রশিক্ষণের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য সফল হবে।

এসময় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বাহাউদ্দিন ফারুকী, হিসাব রক্ষক মোঃ ইব্রাহীম খলিল, এল.ডি.এ মোঃ আব্দুস সাত্তার সহ জেলা পর্যায়ের ইমামগণ ও বিশিষ্ট আলেম-ওলামারা অংশগ্রহণ।অনুষ্ঠান সঞ্চালনায়  করেন শাহজাদপুর উপজেলার ফিল্ড সুপারভাইজার মোঃ হাসিবুর রহমান।