সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের কমিটি বিলুপ্ত; আহবায়ক ও যুগ্ম-আহবায়ক জীবন বৃত্তান্ত চেয়ে প্রজ্ঞাপন

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের কমিটি বিলুপ্ত; আহবায়ক ও যুগ্ম-আহবায়ক জীবন বৃত্তান্ত চেয়ে প্রজ্ঞাপন

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর যৌথ স্বাক্ষরে সিরাজগঞ্জ জেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

সাংগঠনিক কাজে স্থবিরতা, নেতৃত্বদানে অদক্ষতা ও অযোগ্যতার কারণে গঠনতন্ত্রের ২৩ ধারা মোতাবেক উক্ত কমিটি বিলুপ্ত করা হয় বলে বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারী) বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ স্বাক্ষরিত এক বার্তার মাধ্যমে বিষয়টি জানা যায়।

এদিকে একই দিনে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের অন্য একটি বার্তায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার সাংগঠনিক কার্যক্রম গতিশীল ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে শুধুমাত্র আহবায়ক ও যুগ্ম-আহবায়ক পদ প্রত্যাশীদের জীবন বৃত্তান্ত চেয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

উল্ল্যেখ্য বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারী) সংগঠনের নীতি আদর্শ ও শৃঙ্খলাপরিপন্থী কার্যকলাপের অভিযোগে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল হককে সংগঠন থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেয় কেন্দ্রীয় কমিটি। যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপদপ্তর সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে সোমবার একই কারণে সিরাজগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতিন এবং সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হাসান রাজুকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এদিকে গত মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারী) গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর বৈঠকে সংগঠনের মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা ও উপজেলার সম্মেলন নিয়ে আলোচনা করেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা । এ সময় দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের নেতারা সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেন। বৈঠকে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কড়া সতর্কবার্তা দেন তিনি।
পাশাপাশি আওয়ামী লীগ সভাপতি সংগঠনকে গুছিয়ে আনার তাগিদ দেন। তিনি বলেন, সামনেই দলের জাতীয় সম্মেলন হবে। এর আগে আগামী তিন মাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা ও উপজেলাগুলোর সম্মেলন শেষ করতে হবে। দলের আটটি সাংগঠনিক বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকরা সম্মেলন অনুষ্ঠানের প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখবেন বলে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।