সিরাজগঞ্জে দুই কলেজ ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ; দুই অভিযুক্ত পলাতক

সিরাজগঞ্জে দুই কলেজ ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ; দুই অভিযুক্ত পলাতক

সিরাজগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া দুই ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নাইম (২২) ও সাগর (২২) নামের দুই যুবকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীর বাবা চন্দ্রকোনা গ্রামের নাহাবুল মন্ডল বাদী হয়ে সদর থানায় একটি ডিজিটাল আইনে সাধারণ ডায়রী (জিডি) করেছে।

বৃহস্পতিবার (২০মে) সরোজমিনে গিয়ে জানা যায়, গত বুধবার (১৩ মে) চন্দ্রকোনা গ্রামের বাদশা সেখের ছেলে নাইম ও একই গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে সাগর দুইজন মিলে ঐ কলেজ পড়ুয়া দুই ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরী করে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে অশালীন ছবি ধারণ করে। সেই অশ্লীল ছবি নাইম হোসেন নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে প্রচার করে। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। পরে ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকে নাইম ও সাগর পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন ঐ ছাত্রীর স্বজন ও স্থানীয় ব্যক্তিরা।

অভিযুক্ত সাগরের বাবা শফিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি, আমি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি। সে বিষয়টি দেখছে। অপর দিকে নাইমের বাবা বাদশা সেখ পলাতক থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশিদুল ইসলাম রশিদ মোল্লা বলেন, বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি, উভয় পক্ষকে অবগত করেছি। উভয় পক্ষ আমার কাছে আসলে বিষয়টি মিমাংশা করা হবে।

জিডির তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান জানান, চন্দ্রকোনা গ্রামের ঘটনায় ডিজিটাল আইনে সাধারণ ডাইরী (জিডি) হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার ট্রাইব্যুনালে আবেদন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, ডিজিটাল আইনে একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।