সিরাজগঞ্জে মসলা ফ্যাক্টরী ও মিষ্টির দোকানে অর্থদন্ড

সিরাজগঞ্জে মসলা ফ্যাক্টরী ও মিষ্টির দোকানে অর্থদন্ড

নাজমুল হোসেইনঃ



সিরাজগঞ্জ  সদর উপজেলার বাগবার্টী ইউনিয়নের মসলা ফ্যাক্টরীতে জরিমানা  করেছে  ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার  ৪ মে বিকালে জেলা প্রশাসনের  সহকারী  কমিশনার  ও বিজ্ঞ  এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল  আহমেদ  নেতৃত্ব  ভ্রাম্যমাণ  আদালত পরিচালিত  হয় ।

এসময় জেলা সেনেটারী ইন্সপেক্টর  নওয়াজ চৌধুরী ও জেলা পুলিশ বাহিনী সার্বিক সহায়তা প্রদান করেন।

ভ্রাম্যমাণ  আদালত সূত্রে জানা  যায়, মঙ্গলবার (৪ মে)  গোপন  সংবাদে ভিত্তিতে ধলডোব এলাকায় মসলা ফ্যাক্টরীতে অভিযান  চালানো হয়। 

দীর্ঘ দিন  ধরে ইন্ডাস্ট্রিয়াল লাল রং মিশিয়ে মরিচগুড়া তৈরী, ভূট্টার মিহি গুড়ার সাথে লাল রং মিশিয়ে হলুদের মত রং তৈরী করে বাজারজাত করে আসছিলো।অপরদিকে মেয়াদোত্তীর্ন শুকনা মরিচ মেশিনে মিহি করে ভাঙিয়ে তাতে লাল রং মিশ্রিত করে বাজারজাত করা। শরীফ এর আরেকটি গোডাউন তল্লাশি করে ৫০ কেজি ওজনের দুটো রঙের ড্রাম জব্দ করে তা ধ্বংস করা হয়।অবৈধ প্রক্রিয়ায় উৎপাদিত এসব মশলা ও মেয়াদোত্তীর্ণ কাচাঁমাল জব্দ করে জনস্মুখে ধ্বংস করা হয়।অভিযুক্ত  মোঃশরীফ জানায় যে,স্যার আমি প্রায় ৫ বছর ধরে মশলা ফ্যাক্টরী চালাচ্ছি।বিভিন্ন যায়গা থেকে মশলা ব্যবসায়ীরা /ব্যপারীরা এসে এখান থেকে হলুদ,মরিচ,ধনিয়া ভাঙিয়ে নিয়ে যায়।ক্যামিকেল লালা রঙ,ভুট্টার গুড়ার সাথে কৃত্রিম লাল রঙ মিশিয়ে নকল হলুদ তৈরী করে বাজারজাত করছি।আমার কাছ থেকে অনেক ব্যপারীরা এরকম করে নিয়ে গিয়ে বাজারে বিক্রি করছেন।রায়গঞ্জ, তাড়াশ,কাজিপুর ও সিরাজগঞ্জ সদর থেকে অনেক ব্যবসায়ীরা এখান থেকে মশলা তৈরী করে নিয়ে যায়।স্যার এখানে যতগুলো নষ্ট শুকনা মরিচ রয়েছে সবগুলোই ঐ সব ব্যপারীরা রেখে গেছে।তারা আমাকে সহজসরল পেয়ে আমাকে দিয়ে এরকম প্রতারনামূলক ও মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর জিনিস তৈরী করাচ্ছে। স্যার আমাকে সুযোগ দেয়া হোক, আমি এরকম প্রতারনামূলক কাজ আর কখনই করবো না"।

অভিযুক্ত  শরীফ কে এরকম অবহেলা পূর্ন কাজের জন্য ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনের ৪১,৪২,৪৩,৫৩ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে ৩০ হাজার অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।তাকে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিের উপস্থিতিতে এরকম কাজ যেন না করেন তার জন্য প্রথমবার সুযোগ দেয়া হয়।খোলা বাজারের বিক্রিকৃত অধিকাংশ মশলাই এভাবে তৈরী হচ্ছে এবং তা মানুষকে ঠকিয়ে আসছে।এরকম ভাবে তৈরীকৃত মশলা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্বক ক্ষতিরকারন।

অন্য দিকে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের জন্য দুটো মিষ্টির দোকানে সর্বমোট ১০ হাজার  টাকা জরিমানা করা হয়।মাস্ক পরিধান না করায় ২ জনকে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।মাস্কবিহীন পথচারীদের মাঝে মাস্ক বিতরন করা হয়।জনস্বার্থে জেলা প্রশাসনের   অভিযান অব্যাহত থাকবে।