সুসময়ের বন্ধুদের আঃলীগে ঠাঁই নাই; উল্লাপাড়া আঃলীগের কাউন্সিলে ওবায়দুল কাদের

সুসময়ের বন্ধুদের আঃলীগে ঠাঁই নাই; উল্লাপাড়া আঃলীগের কাউন্সিলে ওবায়দুল কাদের

উল্লাপাড়া ডেস্কঃ



বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না? মানুষের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে হবে।

একটি খারাপ আচরণ ১০টি ভাল কাজ ম্লান করে দেয়। মনে রাখতে হবে, জনগণই ক্ষমতার উৎস। কাজেই তাদের স্বার্থকে সবসময়ই প্রাধান্য দিতে হবে।

শনিবার ( ২৭ ফেব্রুয়ারি) সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া বিজ্ঞান কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে জিয়াউর রহমান সেক্টর কমান্ডার ছিলেন। কিন্তু স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে তিনি নিজেকে নিজেই বিতর্কিত করেছেন। ইতিহাস তাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন।

তিনি সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছেন এবং বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিদেশে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা দিয়েছেন। এমনকি তাদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। জাতি তার এই কর্মকাণ্ড কোনদিন ক্ষমা করবে না।

ওবায়দুল কাদেরের মতে, বিএনপি বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন ৭ই মার্চকে পালনের উদ্যোগ নিয়েছেন। তিনি এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।

করোনার মহামারিতেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক দিক থেকে প্রতিবেশী দেশগুলোর তুলনায় অনেক এগিয়ে আছে। একই সঙ্গে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হচ্ছে।

দলের সম্মেলন উপলক্ষে সেতুমন্ত্রী বলেন, যারা বসন্তের কোকিলের মতো দলে ঢুকে সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করবে তাদের ব্যাপারে সকল নেতাকর্মীদের সর্তক থাকতে হবে। দুঃসময়ে যারা দলের জন্য কাজ করেছেন, যারা প্রকৃতই ত্যাগী নেতাকর্মী তাদেরকে অবশ্যই মূল্যায়ন করতে হবে।

পৌরসভা নির্বাচনে যারা দলের বিদ্রোহী হিসেবে প্রার্থী হয়েছিলেন বা প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হয়েছেন তাদেরকে আর কখনো দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। দলেও থাকবে না তাদের পদ পদবী। একই সঙ্গে এদেরকে যারা মদদ দিয়েছেন কেন্দ্র তাদেরও তালিকা প্রস্তুত করছে।

উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে এবং পৌর মেয়র এস এম নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক (রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) এস এম কামাল হোসেন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক মেরিনা জাহান কবিতা, আব্দুল আওয়াল শামীম, তানভীর ইমাম এমপি, অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল আজিজ এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কে এম হোসেন আলী হাসান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার, সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিশ্বাসসহ অনেকে।